প্রকৃতির সাথে মানুষের বন্ধন চিরন্তন। হাজার হাজার বছর আগে থেকে মানুষের বিভিন্ন রোগে উদ্ভিদের ব্যবহার হয়ে আসছে। অধুনা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক জরিপে বলা হয়েছে, এশিয়া ও আফ্রিকার প্রায় ৮০% মানুষ বিশেষ বিশেষ প্রাথমিক চিকিৎসার ক্ষেত্রে হার্বাল ঔষধ ব্যবহার করে। পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া না থাকায় ইউরোপ-আমেরিকাতেও এই ওষুধের কদর ক্রমশ বাড়ছে।

আমাদের দেশে হার্বাল চিকিৎসা তথা ঔষধি গাছ নিয়ে বিস্তর গবেষনা হচ্ছে। বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষনা পরিষদ এর সাবেক পরিচালক খন্দকার মো. ইসমাইল বছরের পর বছর গবেষনা করে এবং আদিবাসিদের চিকিৎসাশাস্ত্র ফার্মাকোপিয়া থেকে অর্জিত জ্ঞান নিয়ে আন্তর্জাতিক মানের বই লিখেছেন, মেডিসিনাল নলেজ এন্ড প্লান্ট অব চিটাগং হিল ট্রাকস। Ethnobotany তে (relationship between people & plants) বাংলাদেশের প্রথম পিএইচ.ডি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. শেখ বখতিয়ার উদ্দিন ও বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষনা পরিষদ আরেক সাবেক পরিচালক মিলে গড়ে তুলেছেন বাংলাদেশের বৃহৎ Medicinal Plants Database of Bangladesh.

বিজ্ঞানসম্মত ভাবে হার্বাল ওষুধের ব্যবহার ব্যপক বিস্তার লাভ করছে। প্রকৃতির প্রতি মানুষের ভালোবাসা-বিশ্বাস, সহজলভ্যতা, স্বল্পমূল্য এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াহীনতার কারণে এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বেড়েই চলেছে।

বিশেষ কথাঃ

এই ব্লগের চিকিৎসা বিধি বিধানগুলো বিশ্বস্থ, নির্ভযোগ্য সূত্র হতে সংগ্রহ করা হয়েছে। যেমন- বাংলাদেশের জাতীয় ই-তথ্যকোষ, ড. শামসুদ্দিন আহমেদের দু’টি বই লোকজ চিকিৎসায় ভেষজ উদ্ভিদ ও ঔষধি উদ্ভিদ (পরিচিতি, উপযোগিতা, ব্যবহার), নিশিথ কুমার পালের ভেষজ উদ্ভিদের কথা, হামদার্দ ও মডার্ন হার্বালের বিভিন্ন প্রকাশনা, প্রথম সারির জাতীয় পত্রিকার স্বাস্থ্যপাতা, প্রভৃতি উৎস হতে সংগ্রহ করা হয়েছে।

পরিচালনায়ঃ

মোঃ আখলাকুজ্জামান

Advertisements