Tag Archives: ডালিম

আমাশয় প্রতিকারে দূর্বার রস

দূর্বার রসের সাথে ডালিম পাতা বা ডালিম ছালের রস মিশিয়ে দিনে ৩-৪ বার সেবন করতে হবে। নিয়মিত ১০-১৫ সেবন করলে আমাশয় ভাল হয়ে যাবে। সেবন বিধিঃ দূর্বার রসঃ ৪-৫ চা চামচ । সতর্কতাঃ নির্দিষ্ট মাত্রায় সেবনে কোনরূপ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। … বিস্তারিত পড়ুন

Posted in আমাশয় | Tagged , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

নাক দিয়ে রক্তপাত বন্ধকরণে ডালিমের কার্যকারিতা

ডালিমের ফুলের রস নাক দিয়ে রক্তপাত বন্ধ করতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। সেবন বিধিঃ ফুলের রসঃ পরিমানমত । সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in রক্তপাত | Tagged , , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

নাক দিয়ে পানি পড়া রোধে ডালিম

যাদের নাক দিয়ে পানি পড়ে তারা ডালিম ফলের সাথে দূর্বার রস মিশিয়ে খেলে বিশেষ উপকার পাওয়া যায়। সেবন বিধিঃ ফলের রসঃ পরিমানমত । সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in সর্দি | Tagged , , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

ডায়াবেটিসের উপকারিতায় ডালিমের ভূমিকা

ফলের খোসা থেঁতো করে পানিতে ভিজিয়ে ছেঁকে প্রতিদিন সকালে সেবন করলে ডায়াবেটিসে উপকার হয়। সেবন বিধিঃ ফলের খোসা থেঁতোঃ পরিমানমত । সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in ডায়াবেটিস | Tagged , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

জন্ডিস রোগের চিকিৎসায় ডালিমের ব্যবহার

ডালিমের ফলের রস জন্ডিসের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়। সেবন বিধিঃ ফলের রসঃ ৫-১২ চা চামচ । সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in জন্ডিস | Tagged , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

সিফিলিস রোগের চিকিৎসায় ডালিম বীজের ব্যবহ ার

ডালিম বীজের ক্বাথ সিফিলিস রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়। সেবন বিধিঃ বীজের ক্বাথঃ পরিমানমত । সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in সিফিলিস | Tagged , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

কৃমি দমনে ডালিম গাছের শিকড়ের কার্যকারিতা

ডালিম গাছের পাতার ও ছালের রস বলকারক, কৃমিনাশক ও পেটের রোগে বিশেষ উপকারী। ডালিমের শিকড়ে আছে পেলেটাইরিন নামক রাসায়নিক উপাদান,যা কৃমিদমনে বিশেষ কার্যকর। সেবন বিধিঃ পাতা ও ছালের রসঃ পরিমানমত । সর্তকতাঃ শিকড় পরিমাণে বেশি খেলে বিষক্রিয়া হতে পারে।

Posted in কৃমিনাশ | Tagged , , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

রক্তপাত(অর্শ ও রক্তযুক্ত থুথু) বন্ধকরণে ডালিম গাছের কার্যকারিতা

ডালিম গাছের ছালচূর্ণ প্রতিদিন ২-৩ বার ঠান্ডা পানিসহ সেবন করলে অর্শজনিত রক্তপাত ও থুথুর সাথে রক্তপাত বন্ধ হয়ে যায় । সেবন বিধিঃ ছালচূর্ণঃ ৫-১০ গ্রাম । সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in রক্তপাত | Tagged , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

হৃদযন্ত্রের দূর্বলতায় ডালিমের রসের উপকারিতা

হৃদযন্ত্রের দূর্বলতায় ডালিম ফলের রসের সাথে গোলাপের নির্যাস মিশিয়ে প্রতিদিন ২-৩ বার সেবন করতে হবে।১৫-২০ দিন নিয়মিত সেবন করতে হবে। সেবন বিধিঃ ফলের রসঃ ৫-১০ চা চামচ। সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in হৃদরোগ | Tagged , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

যকৃতের দূর্বলতায় ডালিমের কার্যকারিতা

যকৃতের দূর্বলতায় ডালিম ফলের রসের সাথে গোলাপের নির্যাস মিশিয়ে প্রতিদিন ২-৩ বার সেবন করতে হবে।১৫-২০ দিন নিয়মিত সেবন করতে হবে। সেবন বিধিঃ ফলের রসঃ ৫-১০ চা চামচ। সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in লিভার/যকৃত | Tagged , , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান