Tag Archives: চিতামূল

মেদ কমাতে চিতার ভূমিকা

চিতামূল চূর্ণ ৩০০ মিলিগ্রাম শোধিত গুগগুলের সাথে গরম পানিসহ নিয়মিত ১-২ মাস সেবন করলে অতিরিক্ত মেদ কেটে যায়। সেবনবিধিঃ মূলচূর্ণঃ ২০০ মিলিগ্রাম। সতর্কতাঃ তেমন কোন সতর্কতার প্রয়োজন নেই। Advertisements

Posted in মেদ | Tagged , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

অর্শ রোগের উপকারে চিতা

অর্শ রোগে চিতামূল চূর্ন মাখন ও মিশ্রির সাথে অথবা ঘোলের সাথে দিনে ২ বার সেব্য। ১-২ মাস সেবন করতে হবে। সেবনবিধিঃ মূলচূর্ণঃ ২০০ মিলিগ্রাম। সতর্কতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in অর্শ রোগ | Tagged , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

পেপটিক আলসার উপসমে চিতা

পেপটিক আলসারে মূলচূর্ন ২৫-৩০ গ্রাম মিষ্টি দই এর সাথে মিশিয়ে আহারের পর দিনে সেবন করতে হবে।নিয়মিত ১-২ মাস সেবন করতে হবে। সেবনবিধিঃ মূলচূর্ণঃ ২০০ মিলিগ্রাম। সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in পেপটিক আলসার | Tagged , | ১ টি মন্তব্য

গ্যাস্ট্রিক আলসার উপসমে চিতা

গ্যাস্ট্রিক আলসারে মূলচূর্ন ২৫-৩০ গ্রাম মিষ্টি দই এর সাথে মিশিয়ে আহারের পর দিনে সেবন করতে হবে।নিয়মিত ১-২ মাস সেবন করতে হবে। সেবনবিধিঃ মূলচূর্ণঃ ২০০ মিলিগ্রাম। সর্তকতাঃ তেমন কোন সর্তকতার প্রয়োজন নেই।

Posted in আলসার, গ্যাস্ট্রিক | Tagged , , | এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান